ধুনট বিলচাড়ীতে সড়কে ভাঙ্গন, ঝুঁকিতে সেতু

246

কারিমুল হাসান লিখন, ধুনটঃ বগুড়ার ধুনট উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়নের বিলচাপড়ী বাঙ্গালী নদির জোড়া সেতুর পশ্চিম সেতুটির সামনে সড়কে ভয়াবহ ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে।সরজমিনে জানাযায়, বিলচাপড়ী বাঙ্গালী নদির মহনায় জোড়া সেতু এবং সেতু হতে চোখ জুড়ানো দুর দিগন্ত দেখতে প্রতিদিন শতশত ভ্রমন পিপাসু বা পর্যটন প্রেমীরা ভীর করে থাকে। ধীরে ধীরে এটি একটি দর্শনীয় স্থানে পরিনত হয়েছে। দুই ঈদ ও পূজোর সময় হাজার মানুষের সমাগম তো প্রতি বছর আছেই।

বাঙ্গালী নদীর এ মহনায় নদির উপর একটি বড় ব্রিজ ও পার্শভাবে খালের উপর একটি ব্রিজ নির্মান হয়। যা স্থানীয় ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে জোড়া সেতু নামে পরিচিত। জানাযায়, আট বছর আগে এলজিইডি এর বাস্তবায়নে ৭২ লক্ষ ৪৭ হাজার ৭৪৪ টাকা ব্যায়ে বগুড়ার মাশকা এন্টারপ্রাইজ নামের এক ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান বিলচাপড়ী খালের উপর ব্রিজটি নির্মাণ করে। এ্যাপ্রোচবিহীন সেতু/কালভার্ট উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় জিপেবল ব্রিজটির নির্মাণ কাজ ২০১২ সালের মে মাসের ১৪ তারিখে শেষ হয়।কিছুদিন আগের ভারি বর্ষনে ব্রিজটির দক্ষিন প্রান্তের পশ্চিম পাশে ব্রিজ সংলগ্ন পাকা সড়কের ৭৫ ভাগ ধ্বসে পড়ে।

বর্তমানে এখনও স্থানটি ধ্বসে পড়া অবস্থাতেই রয়েছে। আহসানুল ইসলাম আকাশ নামের স্থানীয় এক সচেতন নাগরিক জানান, ব্রিজের পাশে এভাবে ভেঙ্গে পড়ায় সাধারন মানুষ প্রতিনয়ত দুর্ঘটনায় পড়ে আহত হচ্ছে। প্রায়ই সন্ধ্যার পর অনেক দর্শনার্থী, যানবাহন ও পথচারীরা অন্ধকারে চলাচলের সময় ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। সামনের দিন গুলোতে যদি আবারও হালকা বা ভাড়ি বৃষ্টি হয় তাহলে সড়কের পুর অংশই ধ্বসে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এখনই যদি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা গন সড়কটি সংস্কার করে তাহলে সড়কের ভাঙ্গন রোধ করা সম্ভব হবে। সড়কের এ ভাঙাগনের প্রভার ব্রিজের উপরে মারাত্বক প্রভাব ফেলতে পারে বলে মনে করেন অনেকেই।

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক প্রত্যাশা প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।