জয়পুরহাটের ক্ষেতলালে নিখোঁজ ভ্যানচালকের লাশ উদ্ধার

236
জয়পুরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ ক্ষেতলালে হোপ গ্রামের নিখোঁজের দুইদিন পর ভালচালক হোসেন আলীর লাশ পাওয়া গিয়েছে উপজেলার হারাবতী নদীর ব্রীজের নিচ। নিহত ভ্যান চালক হোসেন আলী (৩০) জয়পুরহাট সদর উপজেলার কাদোয়া ঢোলপাড়া গ্রামের মৃত আঃ জলিলের ছেলে। শুক্রবার সকাল ৭টায় হারাবতী নদীর ব্রীজের নিচ থেকে নিখোঁজ ভ্যান চালকের লাশ উদ্ধার করে জনগণ।
নিহতের স্ত্রী ববি খাতুন জানান, গত বুধবার বিকেল থেকে আমার স্বামী হোসেন আলী ভ্যাননিয়ে প্রতিদিনের ন্যায় বেরিয়ে গেলে সে আর বাড়ী ফিরে আসেনি। বিভিন্ন যায়গায় অনেক খোঁজাখুঁজির পর তাকে না পেয়ে থানায় ডাইরী করার প্রস্তুতি নেই। কিন্তু শুক্রবার সকালে হোপ গ্রামের স্থানীয় লোকজন রাস্তাদিয়ে  যাওয়ার সময় ব্রিজের নিচে নদীতে অর্ধগলিত হাত পা ও মুখ গামছা দিয়ে বাধা অবস্থায় একটি লাশ ভাসতে দেখে। খবরটি এলাকায় ছড়িয়ে পরলে ঘটনারস্থলে গিয়ে আমার স্বামীর হোসেন আলী’র লাশ চিনতে পায়।
পরে এলাকাবাসী ক্ষেতলাল থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করে।
এবিষয়ে ক্ষেতলাল থানা অফিসার ইনচার্জ নিরেন্দ্রনাথ মন্ডল ঘটনার সত্যতা স্বীকারকরে বলেন, ব্যাটারি চালিত ভ্যান ছিনতাই করে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। এবিষয়ে একটি হত্যা মামলা গ্রহণ করা হয়েছে।
খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক প্রত্যাশা প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।