ধুনটে ফাঁকা সড়কে শীতকালীন সময়ে জন নিরাপত্তা

197

কারিমুল হাসান, ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ  আর মাত্র কিছুদিন। হিমেল হওয়ার মাঝে কুয়াশার চাদর মুড়িয়ে আসছে শীত। বগুড়ার ধুনট উপজেলার চিকাশী জোড়শিমুল পাকা সড়কে বিস্তৃর্ন ফাঁকা সড়ক। প্রায় ২কিলোমিটার সড়কের একপ্রান্তে চিকাশী গ্রামের শেষ সিমানা অন্য প্রান্তে জোড়শিমুল গ্রামের প্রবেশ দ্বার। জন নিরাপত্তার জন্য সড়কের প্রায় মাঝামাঝি স্থানে রয়েছে একমাত্র পুলিশ বক্স। প্রায় তিন বছর আগে ২০১৭ সালে পুলিশ বক্সের নির্মাণ কাজ শেষ হয়। বক্সটি নির্মানের পর থেকে অনেকটা নিরাপত্তায় চলাচল করছে যাত্রীবাহী গাড়ি ও পথচারী।

গ্রীষ্মকালীন সময়ে নিরাপত্তার দিক থেকে খুব একটা বিরম্বনায় পড়তে হয়না। তবে শীত আসলেই নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে বিভিন্ন গাড়ী চালকসহ অনেক পথচারীর মুখে। তবে প্রশ্ন যতই হোক না কেন পুলিশ বক্স নির্মানের পর থেকে সড়কের ওই ফাঁকা স্থানে জন নিরাপত্তার অনেকটাই উন্নতি হয়েছে। শীতকালীন সময়ে সড়কের ওই অংশে জন নিরাপত্তার কাজে একটু বেশিই টহলের ব্যবস্থা করে থাকে থানা পুলিশ। ফলে বিভিন্ন যাত্রীবাহী গাড়ী ও পথচারীরা নির্বিঘেœ চলাচল করতে পারে। তবে শীতকালীন সময়ে কুয়াশার আঁড়ালে মাঝে মাঝে প্রায়ই ছোট খাটো ছিনতাই বা মাদকাসক্তদের আনাগনা দেখা যায়। পুলিশি টহল জোরদার থাকায় বর্তমান সময়ে আর তেমন দেখা যায়না।

এটা ধুনট থানা পুলিশের একটি সাফল্য বলা যেতে পারে। পুজো, ঈদ ও গ্রীষ্মকালীন বিকেলে অনেকেই প্রকৃতির পরশ নিতে সড়কের এ অংশে অনেকেই আসেন। এটা বর্তমান সময়ে ওই স্থানটি ঐতিহ্যের মত হয়ে দাড়িয়েছে। সড়কে পুলিশ বক্স নির্মাণ হওয়ায় দর্শনার্থীরা সস্থির দেখা পেয়েছে তিন বছর আগে থেকেই। উল্লেখ্য যে, উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে বার্ষিক উন্নয়ন তহবিল (এডিবি) থেকে পুলিশ বক্স নির্মান কাজে ৩ লাখ টাকা বরাদ্দ হয়।

গত ২০১৭ সালের ৩০জুন পুলিশ বক্সের নির্মান কাজ শেষ হয়। ধুনট থানার অফিসার ইনচার্জ ( তদন্ত) কামরুজ্জামান মিয়া জানান, উপজেলার ওই সড়কে পুলিশ বাহিনীর টহল অব্যবত রয়েছে। যেহেতু স্থানটি প্রাকৃতিক মনোরম পরিবেশের সাথে মিশে আছে। সেহেতু স্থানটি সবার কাছেই প্রিয়। ওই স্থানে যেন কোন প্রকার সামাজিক অপরাধ বা হয়রানীমুলক অন্য যেকোন অপরাধ সংঘটিত না হয় সেদিকে আমরা সর্বদা তৎপর রয়েছি। ফাঁকা যায়গা হওয়ায় পুলিশ বাহিনীর সামন্য সমস্যা হলেও শীত কালীন সময়ে ওই সড়কে টহল জোরদার করা হবে।

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক প্রত্যাশা প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।