সাদুল্লাপুরে নারী শিশু ও পর্নোগ্রাফি আইনে আটক ১

225

জালাল উদ্দিন, সাদুল্লাপুর (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি: গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরে নারীশিশু ও পর্নোগ্রাফি আইনে একজনকে আটক করেছে থানা পুলিশ। আটককৃত যুবক ধাপেরহাট ইউনিয়নের মোংলাপাড়া গ্রামের শহিদুল ইসলামের পুত্র নাইমুল ইসলাম নাইম(২০)। মেয়ের মা বাদী হয়ে তিনজনকে আসামি করে সাদুল্লাপুর থানায় মামলা দায়ের করলে থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে আসামি নাইমকে আটক করে। অপর আসামি দুজন মওয়াগাড়ি গ্রামের বাসিন্দা।

মামলার বিবরনে জানা যায় যে, মওয়াগাড়ি গ্রামের স্কুল পড়ুয়া মেয়েকে আসামি গন বিভিন্ন সময় স্কুলে যাওয়া আসার সময় বিভিন্ন সময় ভালোবাসার প্রস্তাব দিয়ে ব্যর্থ হয়ে জোর পূর্বক তার শরীরের হাত দেয়। অপর আসামিগন তা মোবাইলে  ধারণ করে।উক্ত ভিডিও দেখিয়ে মেয়েটিকে অনৈতিক প্রস্তাব,অর্থ দাবী করে। মেয়েটি রাজি না হওয়ায় তারা  মোবাইলে ধারণ করা ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপলোড করার হুমকি  প্রদান করে।এমনকি তারা মেয়েটির বাড়িতে প্রবেশ করে অনৈতিক কাজের চেষ্টাও করে।

মেয়েটি তার সাথে ঘটে যাওয়া সকল ঘটনা তার পরিবারকে জানাইলে ৩ জনকে আসামি করে নারী শিশু -পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে সাদুল্লাপুর থানায় মামলা দায়ের করে মেয়েটির মা। যার মামলা নং-১/১/২০।

এ বিষয়ে সাদুল্লাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাসুদ রানা বলেন, মামলা দায়ের পর অভিযান চালিয়ে নাইমের যুবকে আটক করা হয়েছে। বাকীদের আটককের চেষ্টা অব্যাহত আছে। এসময় তিনি আরো বলেন  অল্প বয়সের  কিশোর-কিশোরীদের হাতে স্মার্টফোন থাকায় তারা বিভিন্ন ভাবে তার অপব্যবহার করছে। এতে করে সমাজে উদ্বেগজনক ভাবে  কিশোর অপরাধ বাড়ছে। এটা আমাদের জন্য উৎকন্ঠার। বিষয়টি আমি গত আইনশৃঙ্খলা মিটিংয়ে  তুলে ধরেছি।গত সেপ্টেম্বর মাসে বিভিন্ন ভাবে ২৩ টি অভিযোগ পেয়েছি।এটা একটি অশ্বিনী সংকেত। এ সময় তিনি বাবা মা কিশোর কিশোরীদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, আমাদের সবাইকে সচেতন হতে হবে প্রয়োজনে কাউন্সিলং করতে হবে ছেলে- মেয়েদের খোঁজ-খবর রাখতে হবে।

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক প্রত্যাশা প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।