শিবগঞ্জে ধর্ষণের অভিযোগে শ্বশুর গ্রেফতার

229

রবিউল ইসলাম, শিবগঞ্জ (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলায় পুত্রবধুকে ধর্ষণের অভিযোগে শ্বশুড়কে গ্রেফতার করেছে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ। মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বিহার ইউনিয়নের বিহার উত্তরপাড়া গ্রামের মিলন মিয়ার ছেলে সাব্বির হোসেন এর সাথে গৃহবধু’র ৩ বছর পূর্বে বিবাহ হয়। গৃহবধূ’র স্বামী ট্রাক হেল্পার, জীবিকার তাগিদে তার স্বামী ২০/২১ দিন পর পর বাড়িতে আসে।

এই সুযোগে লম্পট শ্বশুর এর কু-দৃষ্টি পরে তার পুত্রবধূর দিকে। ছেলে বাড়িতে না থাকার সুযোগে লম্পট শ্বশুর মাঝে মধ্যেই গভীর রাতে ছেলে’র বউ এর শয়ন কক্ষে প্রবেশ করে শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়। এতে টের পেয়ে পুত্রবধু জেগে উঠলে শ্বশুড় পালিয়ে যেত। মামলাসূত্রে আরও জানা যায়, কৌশল পরিবর্তন করে লম্পট শ্বশুড় তার পুত্রবধুকে দুধের সাথে নেশা জাতীয় দ্রব্য মিশিয়ে দিতো, পুত্রবধু দুধ পান করার পর গভীর ঘুমে বিভোর হয়ে পরলে লম্পট শ্বশুড় মিলন তার শয়ন কক্ষে প্রবেশ করে তাকে ধর্ষন করত। পুত্রবধু সকাল সকাল ঘুম থেকে জাগা না পেয়ে বেলা ১২টার সময় ঘুম থেকে জাগা পেত এবং তার কাপড় চোপড় এলোমেলো টের পেত।

এতে পুত্রবধুর সন্দেহ হলে সে নিজেই কৌশলে ভিডিও মোবাইল ফোন দিয়ে ভিডিও রেকর্ড করার চেষ্টা করে। একপর্যায়ে ২৬ জুলাই গৃহবধু শয়ন কক্ষে ঘুমানোর ভান করে থাকলে গভীর রাতে লম্পট শ্বশুর পুত্রবধুর শয়ন কক্ষে প্রবেশ করে তার পড়নের কাপড় খুলে ফেলে ধর্ষন করতে থাকলে পুত্রবধু সু-কৌশলে নিজেই আপত্তিকর অবস্থায় ভিডিও ধারন করে। গরীব অসহায় তার বাবাকে সঙ্গে নিয়ে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিকট সমঝতা প্রচেষ্টা ব্যর্থ হলে সোমবার গৃহবধু তার লম্পট শ্বশুড়ের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করে। রাতেই থানা পুলিশ লম্পট শ্বশুড় কে গ্রেফতার করে।

এব্যাপারে থানার অফিসার ইনচার্জ এসএম বদিউজ্জামান বলেন, লম্পট শ্বশুর কর্তৃক গৃহবধুকে ধর্ষনের মামলা নেওয়া হয়েছে। তবে ইসলাম ও সমাজ বিরোধী কার্যকলাপের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে লম্পট শ্বশুড়কে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে সচেতন একটি মহল বলছে, ধর্ষণের ঘটনার ভিডিও পুত্রবধূ নিজেই ধারণ করাকে শুভঙ্করের ফাঁকি বলে মন্তব্য করেছেন।

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক প্রত্যাশা প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।