সোনাতলায় ৭ম শ্রেণির ছাত্রী অপহরণে থানায় মামলাঃ আটক-২

448
সোনাতলায় ৭ম শ্রেণির ছাত্রী অপহরণে থানায় মামলাঃ আটক-২
সোনাতলায় ৭ম শ্রেণির ছাত্রী অপহরণে থানায় মামলাঃ আটক-২

আব্দুর রাজ্জাক, সোনাতলা (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার সোনাতলায় উপজেলার জোড়গাছা ইউনিয়নের উত্তর চরপাড়া গ্রামের ৭ম শ্রেণির ছাত্রী অপরহরণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর বাবা হাফিজার রহমান বাদী হয়ে ৬জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেছে। সোনাতলা এসআই সোহেল রানা ও এএসআই খলিলুর রহমান অভিযান চালিয়ে ওই ছাত্রীকে উদ্ধারসহ দুই অপহরণকারীকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে।

আটককৃত গোসাইবাড়ী পশ্চিমপাড়া গ্রামের চাঁন মিয়ার ছেলে রফিকুল ইসলাম, গাবতলীর তেলিহাটা গ্রামের মৃত নাজিম মোল্লার ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান দুলু মাস্টারকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। অন্যান্য আসামীরা হলো গাবতলীর তেলীহাটা গ্রামের মৃত দারাজ উদ্দিনের ছেলে আব্দুল মজিদ, জামিল বাড়িয়া গ্রামের মোকলেছার রহমানের ছেলে আমিনুল ইসলাম, সারিয়াকান্দি উপজেলার শেরপুর গ্রামের তনু শেখের ছেলে কামাল শেখ ও সোনাতলার গোসাইবাড়ী গ্রামের শাহজাহানের ছেলে রকি।

মামলা সুত্রে জানাযায়, উপজেলার উত্তর চরপাড়া গ্রামের হাফিজার রহমানের মেয়েকে বিয়ে করার জন্য মাঝে মধ্যেই উত্যক্ত করে আসছিলো। এ ঘটনায় হাফিজার গ্রামের মেম্বার ও স্থানীয় লোকজন নিয়ে রকিুলের বাড়ীতে গিয়ে উত্যক্ত না করতে অনুরোধ করে। কিন্তু রফিকুল কর্ণপাত রা করে গত ২২ সেপ্টেম্বর রাতে মেয়েটিকে অন্যান্য আসামীদের সহযোগীতায় অপহরণ করে নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে মেয়েটির বাবা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে।

পুলিশ অভিযোগ মূলে গত ১১ অক্টোবর রাতে অভিযান চালিয়ে প্রথমে রফিকুলকে আটক করে। রফিকুলের স্কীকারোক্তীতে উপজেলার বালুয়া ইউনিয়নের গবারপাড়া গ্রাম থেকে ওই মেয়েটিকে উদ্ধার এবং গাবতলীর তেলিহাটা গ্রাম থেকে মোস্তাফিজার রহমান দুলু মাস্টারকে আটক করে। গতকাল সোমবার থানায় মামলা দায়েরের পর আটককৃতদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক প্রত্যাশা প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।