নামমাত্র মূল্যে গাছ বিক্রি রাজস্ব বঞ্চিত সরকার

334

ফিরোজ হোসেন,বদলগাছী (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ  নওগাঁর বদলগাছীতে উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে টুইন কোয়ার্টার নির্মানের জন্য নামমাত্র দরপত্রে উপজেলা প্রশাসন চত্ত্বরের ২৮টি গাছ পানির দামে বিক্রি করা হয়েছে। এরই মধ্যে বেশীরভাগ গাছ কাটাও শেষ হয়েছে। এদিকে, নামমাত্র মূল্যে গাছ বিক্রি করায় সরকার বিপুল অঙ্কের রাজস্ব হারালেও একটি সিন্ডিকেট বড় অঙ্কের টাকা পকেটস্থ করেছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। গত ১২ নভেম্বর অনেকটা গোপনে গাছগুলো বিক্রি করা হয়। কাগজে-কলমে দরপত্র আহ্বান ও অংশগ্রহণ দেখিয়ে উপজেলা বনকর্মকর্তা ও উপজেলা প্রকৌশলীর পছন্দের ব্যক্তির কাছে মাত্র ২৭ হাজার টাকায় গাছগুলো বিক্রি করা হয়। তবে গাছগুলোর মূল্য কমপক্ষে ২ থেকে আড়াই লাখ টাকা বলে একাধিক কাঠ ব্যবসায়ী জানান। উপজেলা চত্বরের বহু পুরাতন এবং মোটা ১৮ টি বড় আমগাছসহ মোট ২৮টি গাছ বিক্রি করেছে কর্তৃপক্ষ। কৌশলে সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে বন বিভাগের কর্মচারী নূর মোহাম্মদ এর ভাতিজা মোঃ নাঈম হোসেন এর কাছে নামমাত্র মূল্যে গাছগুলো বিক্রি করা হয়। পরে গাছগুলো কাঠ ব্যবসায়ীদের কাছে অনেক বেশি দামে বিক্রি করা হয়। তবে গাছের দাম কম হলেও অনেককে ম্যানেজ করতে মোটা অংকের টাকা খরচ হয়েছে বলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক ব্যক্তি বলেন।

 

এ প্রসঙ্গে জানতে কাঠ ব্যবসায়ী মোঃ নাঈম হোসেন এর দোকানে গিয়ে তাকে না পেয়ে তার বাবা ইসলাম হোসেনের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, ওপেন টেন্ডারের মাধ্যমে সর্বোচ্চ দামে গাছগুলো আমরা কিনে নিয়েছি।

 

উপজেলা ভারপ্রাপ্ত বন কর্মকর্তা আব্দুল হাকিম বলেন, আমরা নীতিমালা অনুসরন করেই নিলামের মাধ্যমে গাছগুলো বিক্রয় করেছি। এত বড় বড় ২৮ টি গাছের এতো কম মূল্য কিভাবে নির্ধারন করলেন প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, নীতিমালার মাপকাঠির ভিত্তিতে মূল্য নির্ধারনের পর ইউএনও স্যারের মাধ্যমে রাজশাহী বিভাগীয় বন কর্মকর্তার অনুমোদন সাপেক্ষে গাছগুলো বিক্রয় করা হয়েছে। এর চেয়ে বেশী কিছু জানার থাকলে ইউএনও স্যারের সাথে কথা বলতে পারেন বলে জানান তিনি।

 

এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী মোখলেছুর রহমান বলেন, যথাযথ নিয়ম মেনেই দরপত্র আহ্বান ও গাছ বিক্রি করা হয়েছে। এতোগুলো গাছ পানির দামে বিক্রয় করা হলো কিভাবে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, গাছের মূল্য যেহেতু বন বিভাগ নির্ধারন করেছে সেহেতু এখানে আমার কিছু বলার সুযোগ নেই।

 

ইউএনও আবু তাহির বলেন, যথাযথ নিয়ম মেনেই দরপত্র আহ্বান ও গাছ বিক্রি করা হয়েছে।

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক প্রত্যাশা প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।