নওগাঁর মান্দায় চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দেওয়ায় অবরুদ্ধ ১০ টি সংখ্যালঘু পরিবার

205

মাহবুবুজ্জামান সেতু, ব্যুরো প্রধান ঃ মান্দা (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর মান্দায় ১০/১২ টি সংখ্যালঘু পরিবারকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। এতে প্রায় ৫/৬ দিন ধরে ওইসব পরিবারের লোকজন বাড়ি থেকে বের হতে পারছেন না বলে জানিয়েছেন। চরম ভোগান্তিতে রয়েছেন তারা।

মান্দা উপজেলার শ্রীরামপুর (সতিহাট)গ্রামের ভূক্তোভূগী ১০/১২ টি পরিবারের পক্ষ থেকে খগেন্দ্রনাথ মন্ডল গত ১২ নভেম্বর মান্দা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর এবং ১৮ নভেম্বর মঙ্গলবার জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন।

ভূক্তভোগীরা মান্দা উপজেলাস্থ গনেশপুর ইউপি’র সতিহাট বাজারে ভূমি অফিসের পূর্ব পার্শ্বের পুকুর পাড়ের স্থায়ী বাসিন্দা। তারা ওই পুকুর পাড়ে পূর্বপুরুষ থেকে শুরু করে বিগত ৪০ বছর যাবৎ অদ্যবধি বসবাস এবং ভূমি অফিসের সামনে দিয়ে চলাচল করে আসছিলেন এবং ওই রাস্তাটিই তাদের চলাচলের একমাত্র রাস্তা বলে জানিয়েছেন। কিন্তু ওই গণেশপুর- মৈনম ইউনিয়ন ভূমি অফিস কর্তৃক কোন রকম নোটিশ ছাড়াই হঠাৎ করেই চলাচলের রাস্তা বন্ধ করার নিমিত্তে প্রাচীর নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়। এতে করে তারা বেকায়দায় পড়ে যান। এরপর কো উপায় না পেয়ে চলাচলের রাস্তাটি উন্মূক্ত রাখতে বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করা হয়। কিন্তু কর্তৃপক্ষ অভিযোগ আমলে না নিয়ে গত মঙ্গলবার রাস্তাটি বন্ধ করে দেয়।এই অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেও কোনো ফল পাচ্ছেন না তারা।

ভূক্তভোগীরা বলেন,গত ৫/৬ দিন ধরে আমরা পরিবার নিয়ে বাড়িতে অবরুদ্ধ হয়ে আছি। আমরা কোনোভাবেই ইটের প্রাচীর ডিঙ্গিয়ে চলাচল করতে পারছি না। বাড়ির বাইরে যাওয়ার মত কোন বিকল্প রাস্তাও নেই যে, আমারা সে রাস্তায় চলাচল করবো। আমরা স্বাভাবিকভাবে চলাচল করতে পারছি না। বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এর থেকে পরিত্রাণ পেতে প্রশাসনের সাহায্য চান তারা।

গণেশপুর- মৈনম ইউনিয়ন ভূমি অফিস কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন যে, এসিল্যান্ড স্যারের নির্দেশনায় ওই রাস্তাটি ব্লক করে দেয়া হয়েছে। আমরা হুকুমের গোলাম। উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী আমাদের কাজ করতে হয়। এখানে আমাদের করার কিছুই নেই। আমরা সরকারি চাকুরী করি, এর থেকে আর বেশি মন্তব্য করতে চাই না। আপনারা স্যারের সাথে কথা বলে দেখতে পারেন। কিন্তু মান্দার এসিল্যান্ড ছুটিতে থাকায় তার মন্তব্য নেয়া সম্ভব হয় নি।

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক প্রত্যাশা প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।