জয়পুরহাটে নারী শিশু ও যৌতুকের মিথ্যা মামলার রায় পেলেন সাংবাদিক

464
জয়পুরহাট জেলা অফিস:-  জয়পুরহাটে প্রাক্তন স্ত্রীর দায়েরকৃত নারী ও শিশু নির্যাতন সহ যৌতুকের মিথ্যা মামলার রায় পেলেন আঃ রাজ্জাক।
জানা যায়, মামলা নং ৩৪/১৮ জেলার কালাই উপজেলার বোড়াই গ্রামের শফিকুল ইসলামের মেয়ে সুমি আকতার কালাই থানায় ২০১৭ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর নারী নির্যাতন ও যৌতুকের অভিযোগে স্বামী আঃ রাজ্জক এর বিরুদ্ধে জেলা দায়রা জর্জ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন।
মামলার শুনানি শেষে আদালত কালাই থানা পুলিশকে তদন্ত ভার অর্পণ করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মেহেদি আদালতে সুষ্ঠো ও নিরপেক্ষ তদন্ত দাখিল না করে মামলার ঘটনাটি সত্য বলে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করে।
১৬ ফেব্রুয়ারি (মঙ্গলবার) দুপুরে আদালতে দায়ের মামলাটি মিথ্যা প্রমাণিত হওয়া সাংবাদিক আঃ রাজ্জাক এ রায় পান। জেলা দায়রা জজ আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল বিচারক রোস্তম আলী দুপুরে এ আদেশ দেন। মামলাটি দীর্ঘ প্রায় ৪ বছর যাবৎ প্রকৃয়াধীন ছিল বলে জানা যায়।
মামলার রায় নিরপেক্ষ হয়েছে বলে আঃ রাজ্জাক বলেন, “মহামান্য আদালত আমাকে ন্যায় বিচার দিয়েছেন। এতে আমি খুশি। এ রায়ের মাধ্যমে আমার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত বলে প্রমাণিত হয়েছে। মামলায় আমি আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি, হয়রানি হয়েছি। আমার মান ক্ষুন্ন করায় আমি বাদী ও তার মিথ্যা স্বাক্ষ্য প্রদানকারীদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি।
এ বিষয়ে, জানতে সুমি আক্তারের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।
নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতে সরকারি বিশেষ রাষ্ট্র পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন আইনজীবী ফিরোজা চৌধুরী এবং অপর পক্ষে ছিলেন আইনজীবী উজ্জল।
খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক প্রত্যাশা প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।