বগুড়ায় ডিবি-পুলিশের অভিযানে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের মূল হোতাসহ ডাকাত সদস্যরা গ্রেপ্তার

299
বগুড়া অফিস :-   বগুড়া জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আলী আশরাফ ভূঁঞা বিপিএম (বার) মহোদয়ের সার্বিক দিক নির্দেশনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আলী হায়দার চৌধুরীর তত্ত্বাবধানে বগুড়া ডিবি ইনচার্জ আব্দুল রাজ্জাক এবং পুলিশ পরিদর্শক ইমরান মাহমুদ তুহিন এর নেতৃত্বে জেলার বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে (২৬ এপ্রিল) দিবাগত রাত ২.১৫ মিনিটে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের মূল হোতাসহ ৬ সদস্যকে গ্রেপ্তার করে বগুড়া জেলা গোয়েন্দা পুলিশের চৌকস টিম।
গ্রেপ্তারকৃত ডাকাত সদস্যদের নামঃ-  ১/ জাহাঙ্গীর আলম (৪০) পিতা- মৃত মুনতাজ আলী খান, ২/ সোলাইমান মিয়া (৪৩) পিতা- মৃত সানাউল্লাহ, ৩/ শামিম আহমেদ (৩৮) পিতা- খাদেম আহমেদ, ৪/ ইয়াসিন আলি (২৭) পিত- জহুরুল ইসলাম, ৫/ দুলাল মিয়া ড্রাইভার (৪১) পিতা-মৃত ওয়াজেদ আলী, ৬/ রসেল খান সুজন (৪০) পিতা- মাসউদুর রহমান খান, এ সময় তাদের কাছ থেকে একটি কাভার্ড ভ্যান তাহার নাম্বার হলো ঢাকা মেট্রো-ট ২২-৭২৪৩ ও কাভার্ড ভ্যান ইফাদ কোম্পানির ভর্তি বিভিন্ন পণ্য উদ্ধার করা হয় যার আনুমানিক মূল্য ৪৫ লক্ষ টাকা।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃত জাহাঙ্গীর আলম (৪০) জানান যে, (২২ এপ্রিল) ইফাদ কোম্পানির মাল বহনকারী কাভার্ড ভ্যান চালক দুলাল এর সাথে যোগসাজশ করে এই ডাকাতি কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। সে আরও জানান, ঢাকা আশুলিয়া থেকে ইফাদ কোম্পানি গোডাউন হইতে ড্রাইভার দুলাল ও হেলপার রাশেদ মালামাল লোড করে সিলেটের উদ্দেশ্যে রওনা হয় পথিমধ্যে আমি এবং ড্রাইভার দুলাল পরস্পর যোগসাজশে করে নরসিংদী জেলার মনোহরদী থানা এলাকা হইতে রাসেল খান সুজনসহ সব ডাকাত সদস্য যাত্রীবেশে কাভার্ডভ্যানে ওঠে এবং হেলপারকে চেতনানাশক ওষুধ পান করিয়ে অচেতন করে টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতী এলাকায় হেল্পার রাশেদকে ফেলে রেখে কাভার্ড ভ্যানটি নিয়ে বগুড়ার শিবগঞ্জে আসা হয়।
এ বিষয়ে বগুড়ার ডিবির ইনচার্জ আব্দুল রাজ্জাকের সাথে কথা বললে তিনি জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আন্তঃজেলা ডাকাত সদস্যের মূল হোতাসহ সক্রিয় সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়। জেলার আইনশৃঙ্খলা রক্ষার্থে ডিবি পুলিশ সব সময় কাজ করে যাবে।
খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক প্রত্যাশা প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।