হাকিমপুরে এক গৃহবধু গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা

359
ছামিউল ইসলাম, হাকিমপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ-  দিনাজপুরের হাকিমপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে এক গৃহবধু গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। ওই গৃহবধুর নাম নাসরিন (২১)। তিনি উপজেলার বড়ডাঙ্গা গ্রামের সুজন হােসেনের স্ত্রী। তাদের ১ বছর বয়সী একটি সন্তান রয়েছে।
শনিবার (১ মে) সকাল ৭টার দিকে সুজনের বাড়ি থেকে নাসরিনের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। স্বামীর দাবি নাসরিন আত্মহত্যা করেছে, তবে নাসরিনের বাবা জাহিদুল ইসলামের অভিযােগ, তার মেয়েকে হত্যা করে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলিয়ে রাখা হয়। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই। ঘটনার পর থেকে স্বামী ও শ্বশুর পলাতক রয়েছেন।
হাকিমপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লক্সের মেডিক্যাল অফিসার ডা. স্বপা রানী দত্ত জানান, সকাল ৮টার দিকে ওই গৃহবধূকে তার পরিবারের সদস্যরা হাসপাতালে নিয়ে আসেন। এ সময় ডিউটিরত চিকিৎসক তাকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে মৃত ঘােষণা করেন। তার গলায় একটি ফাঁসের দাগ ছিল, তবে তিনি কী ভাবে মারা গেছেন ময়না তদন্তের পর জানা যাবে।
হাকিমপুর থানার অফিসার ইনচার্জ  ফেরদৌস ওয়াহিদ জানান , পুলিশ খবর পেয়ে গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানাে হয়েছে। পারিবারিক কলহের জেরে নিজে নাসরিন ঘরের বাঁশের আড়ার সাথে ওড়না পেচিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়েছেন কিনা বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের রিপাের্ট এলেই স্পষ্ট হবে এটি হত্যা না আত্মহত্যা।
খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক প্রত্যাশা প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।