বগুড়ায় আদমদীঘিতে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা

389

ওমর ফারুক, আদমদীঘি (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ-  বগুড়ার আদমদীঘির শালগ্রাম-কোমরভোগ রাস্তায় ব্যবসায়ী রুবেলকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও চোখ উপরে হাতের রগ কেটে হত্যা করেছেন দৃর্বৃত্তরা।

রুবেল উপজেলার শালগ্রামের হাজী সামছুল হকের ছেলে ব্যবসায় কাজে পরিবার নিয়ে তিলকপুর বসবাস করতেন। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরন করেছেন। হত্যার সাথে জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শিবলু ও রিপনকে আটক করেছেন।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার বিকেলে ব্যবসায়ী রুবেল হোসেন পাওনা টাকা আদায়ের জন্য বগুড়ার আদমদীঘি বাজারে আসেন। আদায় শেষে আনুামিনক রাত ১০টার দিকে মোটরসাইকেল যোগে আদমদীঘি থেকে জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার তিলকপুর বাজারে নিজ বাসায় ফিরছিলেন।

সে আদমদীঘির শালগ্রাম-কোমারভোগ রাস্তার কমিউনিটি ক্লিনিক সংলগ্ন স্থানে পৌছিলে দূবৃর্ত্তরা তার মোটরসাইকেলের গতি রোধ করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার শরীরের বিভিন্ন অংশে কুপিয়ে জখম করে এবং তার চোখ উপরে দুহাতের রগ কেটে হত্যা করে ধানের জমিতে ফেলে রাখে এবং তার ব্যবহৃত ব্যবহৃত পালসার মোটরসাইকেল ও নগদ টাকা নিয়ে যায়।

সকালে ঘটনাস্থলে রুবেলের ক্ষত বিক্ষত লাশ স্থানীয়রা দেখতে পেয়ে থানা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরন করে। এ ঘটনায় থানার অফিসার ইনচার্জ জালাল উদ্দিন বলেন, মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে তবে প্রাথমিক ভাবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুইজনকে আটক করা হয়েছে।

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক প্রত্যাশা প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।