তালতলীতে এক ব্যক্তির মরাদেহ উদ্ধার,পরিবারের দাবি ‘হত্যা’

157

মাসুম বিল্লাহ (বরগুনা) প্রতিনিধি: বরগুনার তালতলীতে পরিত্যক্ত নালা থেকে আলী আকবর(৫৮)নামের এক ব্যক্তির মরাদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরিবারের দাবি তাকে হত্যা করে ফেলে রেখে গেছে দুর্বৃত্তরা। শনিবার(০৩ অক্টোবর )উপজেলার বগীহাট এলাকার নিহত ব্যক্তির নিজ বাড়ির পরিত্যক্ত ছোট নালা থেকে উদ্ধার করা হয়। নিহত আলী আকবর তালুকদার বগীরহাট এলাকার মৃত্যু আজিম উদ্দিন তালুকদারের ছেলে।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিনের মত নিহত আলী আকবর(৫৮) রাতে খাওয়াদাওয়া করে ঘুমাতে যায়। সকালে উঠে দেখে তার রুমে তালা দেওয়া। এরপরে অনেক খোঁজাখুজি করার পরে পাশের বাড়ির লোকজন বাগানের পরিত্যক্ত ছোট নালায় তার লাশ ভাসতে দেখে তার পরিবারকে ও পরে পুলিশকে খবর দেন। পরে পুলিশ গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে। লাশ উদ্ধারের সময় পড়নের কাপড় ছেড়া পাওয়া গেছে । সেই ছেড়া কাপড় দিয়ে তার গলায় পেছানো দেখা যায়। পুলিশ বলছে তার মুখসহ শরীরের আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। প্রাথমিকভাবে পুলিশ ধারণা করছে হত্যার পর কে বা কারা তার তাকে ফেলে রেখে গেছে। পরিবারের দাবি তাকে কেউ হত্যা করে ফেলা রাখা হয়েছে।

নিহত আলী আকবর এর ছেলে মো.ইলিয়াস বলেন, আমার বাবা প্রতিদিনের মত রাতে খাওয়াদাওয়া করে ঘুমাতে যায়। এর পরে রাতে কে বা কারা ডেকে নিয়ে হত্যা করে নালায় ফেলে রেখে গেছে জানিনা। তবে আমাদেও ধারণা আমার সৎ মা ছিলো ও তার বর্তমান স্বামী তারা এই হত্যার সাথে জড়িত থাকতে পারে। বাবার রুমের লাইট খুলে রেখে রাখা হয়েছে ও সাথে থাকা বিভিন্ন তালার চাবি নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। তিনি আরও বলেন আমার বাবা ব্যবসায় করতো ।

ব্যবসার সুবাধে অনেকে কাছে টাকা পায়শা পাইবে। হয়তো বা তারাই এই কাজ করেছে।তালতলী থানায়র অফিসার ইনচার্জ মো. কামরুজ্জামান মিয়া বলেন,খবর পেয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহত আলী আকবর এর শরীরের পিঠে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চললে। হত্যার সঠিক রহস্য বের করার জন্য তদন্ত চলছে।

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, দৈনিক প্রত্যাশা প্রতিদিন এর দায়ভার নেবে না।